ঢাকা ০৬:২২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হামাস-ইসরাইল যুদ্ধ : যা বললেন এরদোগান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৫৩:২২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ অক্টোবর ২০২৩ ১৪৮ বার পড়া হয়েছে
NEWS396 অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েপ এরদোগান ঘোষণা করেছেন যে- তুরস্ক চলমান সংঘাত নিরসনে ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে মধ্যস্থতা করতে প্রস্তুত।

সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর আঙ্কারায় এক সংবাদ সম্মেলনে এরদোগান এ মন্তব্য করেন।

এরদোগান আরো বলেন, তুরস্ক গাজায় মানবিক সাহায্য পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ সময় তিনি জোর দিয়ে বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি যে- স্বাধীন, সার্বভৌম ফিলিস্তিন ছাড়া এই অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে না।’

ইসরাইলের প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজোগের সাথে এক ফোনালাপে এরদোগান ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে নির্বিচারে হামলা থেকে বিরত থাকার জন্য ইসরাইলকে আহ্বান জানান। একই সাথে তিনি গাজার জনগণের সম্মিলিত ক্ষতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। এ সময় তিনি সতর্ক করে বলেন যে- এই ধরনের কর্মকাণ্ড এই অঞ্চলে সহিংসতা বাড়াতে পারে।

এরদোগান হামাসের উদ্দেশেও কিছু কথা বলেছেন। তিনি উভয় পক্ষকে যুদ্ধের ‘নৈতিকতা’ মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন।

এরদোগান তার বক্তব্যে সংঘাতের সময় সংযম এবং দায়িত্বশীল আচরণের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন।

উল্লেখ্য, গাজাভিত্তিক ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস ইসরাইলের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান শুরু করেছে বলে ঘোষণা করেছে। এর প্রতিরোধে পাল্টা হামলা শুরু করেছে ইসরাইল।

এক বিবৃতিতে হামাসের সামরিক শাখার প্রধান মোহাম্মদ দেইফ বলেন, গত শনিবার (৭ অক্টোবর) সকালে ইসরাইলে পাঁচ হাজার রকেট বর্ষণের মাধ্যমে ‘অপারেশন আল-আকসা স্ট্রম’ শুরু হয়েছে। ইসরাইল গাজা থেকে অনুপ্রবেশের কথা স্বীকার করেছে।
সূত্র : দি নিউজ

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

হামাস-ইসরাইল যুদ্ধ : যা বললেন এরদোগান

আপডেট সময় : ১০:৫৩:২২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ অক্টোবর ২০২৩

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েপ এরদোগান ঘোষণা করেছেন যে- তুরস্ক চলমান সংঘাত নিরসনে ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে মধ্যস্থতা করতে প্রস্তুত।

সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর আঙ্কারায় এক সংবাদ সম্মেলনে এরদোগান এ মন্তব্য করেন।

এরদোগান আরো বলেন, তুরস্ক গাজায় মানবিক সাহায্য পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ সময় তিনি জোর দিয়ে বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি যে- স্বাধীন, সার্বভৌম ফিলিস্তিন ছাড়া এই অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে না।’

ইসরাইলের প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজোগের সাথে এক ফোনালাপে এরদোগান ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে নির্বিচারে হামলা থেকে বিরত থাকার জন্য ইসরাইলকে আহ্বান জানান। একই সাথে তিনি গাজার জনগণের সম্মিলিত ক্ষতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। এ সময় তিনি সতর্ক করে বলেন যে- এই ধরনের কর্মকাণ্ড এই অঞ্চলে সহিংসতা বাড়াতে পারে।

এরদোগান হামাসের উদ্দেশেও কিছু কথা বলেছেন। তিনি উভয় পক্ষকে যুদ্ধের ‘নৈতিকতা’ মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন।

এরদোগান তার বক্তব্যে সংঘাতের সময় সংযম এবং দায়িত্বশীল আচরণের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন।

উল্লেখ্য, গাজাভিত্তিক ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস ইসরাইলের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান শুরু করেছে বলে ঘোষণা করেছে। এর প্রতিরোধে পাল্টা হামলা শুরু করেছে ইসরাইল।

এক বিবৃতিতে হামাসের সামরিক শাখার প্রধান মোহাম্মদ দেইফ বলেন, গত শনিবার (৭ অক্টোবর) সকালে ইসরাইলে পাঁচ হাজার রকেট বর্ষণের মাধ্যমে ‘অপারেশন আল-আকসা স্ট্রম’ শুরু হয়েছে। ইসরাইল গাজা থেকে অনুপ্রবেশের কথা স্বীকার করেছে।
সূত্র : দি নিউজ