ঢাকা ০৭:০৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আ.লীগের সব রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে: রেজা কিবরিয়া

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:০৯:৪০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ অক্টোবর ২০২৩ ১৩৫ বার পড়া হয়েছে
NEWS396 অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আওয়ামী সরকারের চতুর্মূখী সব রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন গণঅধিকার পরিষদের (একাংশ) আহ্বায়ক ও অর্থনীতিবিদ ড. রেজা কিবরিয়া।

তিনি বলেন, দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক কোনো সাপোর্ট নেই এই সরকারের। আমাদের এবারের লড়াই হচ্ছে দেশ এবং জনগণকে মুক্ত করার লড়াই। এবারের লড়াইয়ে আমরা বিজয় ছিনিয়ে এনে তবেই ঘরে ফিরব।

বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবে গণঅধিকার পরিষদের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রেজা কিবরিয়া বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার এখন তাদের নেতাকর্মীদের লাঠি নিয়ে মাঠে নামার নির্দেশ দিচ্ছে, এতে পরিষ্কার যে আওয়ামী লীগ একটি মাফিয়া দল। কোনো রাজনৈতিক দল, এমন আচরণ করতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, আমরা গণঅধিকার পরিষদ সর্বোচ্চ শক্তি নিয়ে মাঠে থাকব। আসুন দলমত ভুলে দেশ এবং জনগণকে রক্ষার লড়াইয়ে সবাই ঝাঁপিয়ে পড়ি।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় অংশ নিয়ে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আগামী ২৮ অক্টোবর আওয়ামী সরকারের বিদায় ঘণ্টা শুরু হবে। সরকার যতই বাঁধা প্রদান করুক, তারা কোনোভাবেই এবার তাদের পতন ঠেকাতে পারবে না। পুরো ঢাকা শহর থাকবে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের দখলে। আমাদের প্রায় ৪০ লাখ নেতাকর্মীর নামে মামলা দেওয়া হয়েছে। মামলাপ্রাপ্ত সকল নেতাকর্মী ঢাকা শহর দখলে রাখবে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে সরকারের পায়ের নিচে কোনো মাটি নেই। সরকার এখন মরণ কামড় দেওয়ার চেষ্টা করছে, এতে সরকার পার পাবে না। দলমত ভুলে, আসুন আগামী ২৮ অক্টোবর রাজপথে নামুন।

বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, আগামী ২৮ অক্টোবর থেকে আমাদের চূড়ান্ত লড়াইয়ে গণঅধিকার পরিষদ সর্বোচ্চ শক্তি নিয়ে মাঠে থাকবে। গণঅধিকার পরিষদের সাথে অসংখ্য তরুণ এবং যুবক রাজনীতি করে। আমি তরুণদের রাজপথে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানাচ্ছি। তরুণদের হাতেই আগামীর বাংলাদেশ।

গণঅধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সদস্য সচিব ফারুক হাসান বলেন, আগামী ২৮ তারিখ হবে আমাদের চূড়ান্ত লড়াইয়ের সূচনা। আমরা বিজয় না আসা পর্যন্ত এই সংগ্রাম চালিয়ে যাবো। আমরা এদেশের লাখো তরুণ, কেউই ভোট দিতে পারিনি। আমরা আর ভোটাধিকার হারা হতে চাই না। আমরা আমাদের ভোট দেওয়ার জন্য যা যা করার তাই করব। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আমরা তরুণরা অঙ্গীকারবদ্ধ, দেশকে বাঁচার জন্য কাজ করে যাব আমরা।

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন— এবি পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু, এনডিপির চেয়ারম্যান কারী আবু তাহের, এনডিএমের যুগ্ম মহাসচিব হিরা প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

আ.লীগের সব রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে: রেজা কিবরিয়া

আপডেট সময় : ১২:০৯:৪০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ অক্টোবর ২০২৩

আওয়ামী সরকারের চতুর্মূখী সব রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন গণঅধিকার পরিষদের (একাংশ) আহ্বায়ক ও অর্থনীতিবিদ ড. রেজা কিবরিয়া।

তিনি বলেন, দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক কোনো সাপোর্ট নেই এই সরকারের। আমাদের এবারের লড়াই হচ্ছে দেশ এবং জনগণকে মুক্ত করার লড়াই। এবারের লড়াইয়ে আমরা বিজয় ছিনিয়ে এনে তবেই ঘরে ফিরব।

বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবে গণঅধিকার পরিষদের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রেজা কিবরিয়া বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার এখন তাদের নেতাকর্মীদের লাঠি নিয়ে মাঠে নামার নির্দেশ দিচ্ছে, এতে পরিষ্কার যে আওয়ামী লীগ একটি মাফিয়া দল। কোনো রাজনৈতিক দল, এমন আচরণ করতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, আমরা গণঅধিকার পরিষদ সর্বোচ্চ শক্তি নিয়ে মাঠে থাকব। আসুন দলমত ভুলে দেশ এবং জনগণকে রক্ষার লড়াইয়ে সবাই ঝাঁপিয়ে পড়ি।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় অংশ নিয়ে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আগামী ২৮ অক্টোবর আওয়ামী সরকারের বিদায় ঘণ্টা শুরু হবে। সরকার যতই বাঁধা প্রদান করুক, তারা কোনোভাবেই এবার তাদের পতন ঠেকাতে পারবে না। পুরো ঢাকা শহর থাকবে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের দখলে। আমাদের প্রায় ৪০ লাখ নেতাকর্মীর নামে মামলা দেওয়া হয়েছে। মামলাপ্রাপ্ত সকল নেতাকর্মী ঢাকা শহর দখলে রাখবে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে সরকারের পায়ের নিচে কোনো মাটি নেই। সরকার এখন মরণ কামড় দেওয়ার চেষ্টা করছে, এতে সরকার পার পাবে না। দলমত ভুলে, আসুন আগামী ২৮ অক্টোবর রাজপথে নামুন।

বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, আগামী ২৮ অক্টোবর থেকে আমাদের চূড়ান্ত লড়াইয়ে গণঅধিকার পরিষদ সর্বোচ্চ শক্তি নিয়ে মাঠে থাকবে। গণঅধিকার পরিষদের সাথে অসংখ্য তরুণ এবং যুবক রাজনীতি করে। আমি তরুণদের রাজপথে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানাচ্ছি। তরুণদের হাতেই আগামীর বাংলাদেশ।

গণঅধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সদস্য সচিব ফারুক হাসান বলেন, আগামী ২৮ তারিখ হবে আমাদের চূড়ান্ত লড়াইয়ের সূচনা। আমরা বিজয় না আসা পর্যন্ত এই সংগ্রাম চালিয়ে যাবো। আমরা এদেশের লাখো তরুণ, কেউই ভোট দিতে পারিনি। আমরা আর ভোটাধিকার হারা হতে চাই না। আমরা আমাদের ভোট দেওয়ার জন্য যা যা করার তাই করব। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আমরা তরুণরা অঙ্গীকারবদ্ধ, দেশকে বাঁচার জন্য কাজ করে যাব আমরা।

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন— এবি পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু, এনডিপির চেয়ারম্যান কারী আবু তাহের, এনডিএমের যুগ্ম মহাসচিব হিরা প্রমুখ।