ঢাকা ০৭:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আবার ব্যালন ডি’অর জয় মেসির

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৫৭:৫৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০২৩ ১৬৫ বার পড়া হয়েছে
NEWS396 অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আবারো ফুটবলারদের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ মর্যাদার পুরস্কার ব্যালন ডি’অর ট্রফি জিতলেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওলেন মেসি। আর্লিং হলান্ড কিলিয়ান এমবাপ্পেকে পেছনে ফেলে অষ্টমবারের মতো এই মর্যাদায় ভূষিত হলেন ৩৬ বছর বয়স্ক মেসি। সোমবার (৩০ অক্টোবর) রাতে প্যারিসের শ্যালে থিয়েটারে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে তার হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন সাবেক ইংলিশ তারকা ডেভিড বেকহাম। বিশ্বকাপ জয় তাকে এই পুরস্কার জয়ে অনেকটাই এগিয়ে দিয়েছে।

গত কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনাকে শিরোপা জেতানোর পরই আঁচ করা গিয়েছিল। যদিও ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে ট্রেবল জিতে, গোলের বন্যা বইয়ে দিয়ে দাবিদার হয়েছিলেন আর্লিং হলান্ডও। কিন্তু শেষমেশ ফ্রান্স ফুটবলের জুরি বোর্ডের ভোটের রায়টা পেলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা লিওনেল মেসিই।

গত বছরের ডিসেম্বরে কাতারে আয়োজিত ফিফা বিশ্বকাপে মেসির জাদুতে বুঁদ হয়েছিল গোটা বিশ্ব। ৩৬ বছর পর দেশকে এনে দিয়েছেন আকাঙ্ক্ষিত শিরোপা। ৭ গোল ও ৩ অ্যাসিস্ট করে আসরের সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোল স্কোরার হয়ে সিলভার বুটও জিতেছিলেন। এমন পারফরম্যান্সের পর ব্যালন ডি’অরের দৌড়ে তার বড় প্রতিদ্বন্দ্বী আর কে হতে পারে!এছাড়া পিএসজির হয়ে গত মৌসুমে লিগ শিরোপাও জিতেছেন তিনি। প্যারিসিয়ানদের হয়ে গত মৌসুমে ৪১ ম্যাচে তার পা থেকে এসেছে ২১ গোল ও ২০ অ্যাসিস্ট।

অষ্টম ব্যালন ডি’অর জিতে তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় মেসি বলেন, ‘আমি যে ক্যারিয়ার পেয়েছি সেটা আমি কল্পনাও করিনি! ভাগ্যকে আমার পাশে পেয়েছি, সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ। আমার সব লক্ষ্য পূরণ করতে পেরেছি, ফুটবলে যা কিছু আছে তার সবই অর্জন করতে পেরেছি— যা খুবই কঠিন।’ফুটবলারদের ব্যক্তিগত মর্যাদার এ পুরস্কার অর্জনে মেসির ধারেকাছে নেই কেউ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো জিতেছেন সর্বোচ্চ পাঁচটি। পর্তুগিজ তারকার সাথে ব্যবধানটা এখন বেড়ে দাঁড়াল তিনে।

১৯৫৬ সাল থেকে চলে আসা এ পুরস্কার মেসির হাতে প্রথম ওঠে ২০০৯ সালে। এরপর টানা ২০১০, ২০১১ ও ২০১২ সাল পর্যন্ত তার থেকে এ পুরস্কারটি কেউ চিনিয়ে নিতে পারেনি। দুই বছর বিরতি দিয়ে ২০১৫ সালে পঞ্চম ব্যালন ডি’অর ট্রফি ওঠে মেসির হাতে। এরপর ২০১৯ সালে ষষ্ঠ আর ২০২১ সালে জেতেন সপ্তম ট্রফিটি। প্রথম ছয়টি জেতেন বার্সেলোনায় থাকতে। সপ্তমটি পিএসজিতে যোগ দেয়ার পর। আর এবার রেকর্ডবুকে নাম লেখালেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাব ইন্টার মায়ামিকে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

আবার ব্যালন ডি’অর জয় মেসির

আপডেট সময় : ১০:৫৭:৫৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০২৩

আবারো ফুটবলারদের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ মর্যাদার পুরস্কার ব্যালন ডি’অর ট্রফি জিতলেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওলেন মেসি। আর্লিং হলান্ড কিলিয়ান এমবাপ্পেকে পেছনে ফেলে অষ্টমবারের মতো এই মর্যাদায় ভূষিত হলেন ৩৬ বছর বয়স্ক মেসি। সোমবার (৩০ অক্টোবর) রাতে প্যারিসের শ্যালে থিয়েটারে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে তার হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন সাবেক ইংলিশ তারকা ডেভিড বেকহাম। বিশ্বকাপ জয় তাকে এই পুরস্কার জয়ে অনেকটাই এগিয়ে দিয়েছে।

গত কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনাকে শিরোপা জেতানোর পরই আঁচ করা গিয়েছিল। যদিও ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে ট্রেবল জিতে, গোলের বন্যা বইয়ে দিয়ে দাবিদার হয়েছিলেন আর্লিং হলান্ডও। কিন্তু শেষমেশ ফ্রান্স ফুটবলের জুরি বোর্ডের ভোটের রায়টা পেলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা লিওনেল মেসিই।

গত বছরের ডিসেম্বরে কাতারে আয়োজিত ফিফা বিশ্বকাপে মেসির জাদুতে বুঁদ হয়েছিল গোটা বিশ্ব। ৩৬ বছর পর দেশকে এনে দিয়েছেন আকাঙ্ক্ষিত শিরোপা। ৭ গোল ও ৩ অ্যাসিস্ট করে আসরের সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোল স্কোরার হয়ে সিলভার বুটও জিতেছিলেন। এমন পারফরম্যান্সের পর ব্যালন ডি’অরের দৌড়ে তার বড় প্রতিদ্বন্দ্বী আর কে হতে পারে!এছাড়া পিএসজির হয়ে গত মৌসুমে লিগ শিরোপাও জিতেছেন তিনি। প্যারিসিয়ানদের হয়ে গত মৌসুমে ৪১ ম্যাচে তার পা থেকে এসেছে ২১ গোল ও ২০ অ্যাসিস্ট।

অষ্টম ব্যালন ডি’অর জিতে তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় মেসি বলেন, ‘আমি যে ক্যারিয়ার পেয়েছি সেটা আমি কল্পনাও করিনি! ভাগ্যকে আমার পাশে পেয়েছি, সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ। আমার সব লক্ষ্য পূরণ করতে পেরেছি, ফুটবলে যা কিছু আছে তার সবই অর্জন করতে পেরেছি— যা খুবই কঠিন।’ফুটবলারদের ব্যক্তিগত মর্যাদার এ পুরস্কার অর্জনে মেসির ধারেকাছে নেই কেউ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো জিতেছেন সর্বোচ্চ পাঁচটি। পর্তুগিজ তারকার সাথে ব্যবধানটা এখন বেড়ে দাঁড়াল তিনে।

১৯৫৬ সাল থেকে চলে আসা এ পুরস্কার মেসির হাতে প্রথম ওঠে ২০০৯ সালে। এরপর টানা ২০১০, ২০১১ ও ২০১২ সাল পর্যন্ত তার থেকে এ পুরস্কারটি কেউ চিনিয়ে নিতে পারেনি। দুই বছর বিরতি দিয়ে ২০১৫ সালে পঞ্চম ব্যালন ডি’অর ট্রফি ওঠে মেসির হাতে। এরপর ২০১৯ সালে ষষ্ঠ আর ২০২১ সালে জেতেন সপ্তম ট্রফিটি। প্রথম ছয়টি জেতেন বার্সেলোনায় থাকতে। সপ্তমটি পিএসজিতে যোগ দেয়ার পর। আর এবার রেকর্ডবুকে নাম লেখালেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাব ইন্টার মায়ামিকে।