ঢাকা ০৫:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানি ইসরাইলকে ৯৯ শতাংশ অস্ত্র দিচ্ছে

ডেক্স রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৪:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০২৪ ৭৫ বার পড়া হয়েছে
NEWS396 অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
অবরুদ্ধ গাজায় লাগাতার নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে দখলদার ইসরাইলী বাহিনী। ইতোমধ্যে প্রায় ৩২ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। তবুও থামছে বিমান হামলা। এমনকি জাতিসংঘের ত্রাণ নিতে আসা ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলা চালানো হচ্ছে। হাসপাতাল, বাড়ী-ঘর মসজিদ সব ধ্বংস করে দিয়েছে। আর এই ইসলাইলকে বড় সমর্থন দিচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানি।

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় হামাসের বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধকে কেন্দ্র করে বিশ্বজুড়ে ইসরাইলের কাছে অস্ত্র বিক্রি সীমিত করার আহ্বান বেড়েছে। তবে সাম্প্রতিক দিনগুলোতে প্রকাশিত তথ্যে দেখা যায়, ইসরাইলের প্রায় সকল অস্ত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানি থেকে আমদানি করা।

যুদ্ধ এবং অস্ত্র নিয়ে গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই) ২০২৩ সালের রিপোর্ট অনুযায়ী, ইসরাইলের কেনা অস্ত্রের ৬৯ শতাংশ মার্কিন সংস্থা, ৩০ শতাংশ জার্মানি এবং শূন্য দশমিক নয় শতাংশ ইতালি থেকে।

এসআইপিআরআই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘২০২৩ সালের শেষের দিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দ্রুত ইসরাইলকে হাজার হাজার গাইডেড বোমা এবং ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করেছিল। কিন্তু ২০২৩ সালে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ইসরাইলি অস্ত্র আমদানির মোট পরিমাণ প্রায় ২০২২ সালের মতো ছিল। ২০২৩ সালের শেষ নাগাদ এখনো হাতে না পাওয়া প্রধান অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৬১টি যুদ্ধবিমান এবং জার্মানির ৪টি সাবমেরিন।’

এটা স্পষ্ট যে মার্কিন সংস্থাগুলোর তৈরি জয়েন্ট ডাইরেক্ট অ্যাটাক মিউনিশনে (জেডিএএম) মতো সিস্টেমের মাধ্যমে সাধারণ বোমাগুলোকে নির্ভুল অস্ত্রে রূপান্তরিত করা হয়। ইসরাইল এ ধরনের সিস্টেম তৈরি করে না।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক দশকগুলোতে মার্কিন যুদ্ধবিমান বিক্রি হামাস এবং হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে ইসরাইলের সামরিক পদক্ষেপে একটি প্রধান ভূমিকা পালন করেছে।

ফ্রান্সের এয়ারবাস হেলিকপ্টারের নির্মিত একটি হেলিকপ্টার বাদে ইসরাইলি বিমান বাহিনীর বর্তমান চালিত বিমানের সবকটিই যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি।

সূত্র : টাইমস অব ইসরাইল

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানি ইসরাইলকে ৯৯ শতাংশ অস্ত্র দিচ্ছে

আপডেট সময় : ০৫:৫৪:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০২৪
অবরুদ্ধ গাজায় লাগাতার নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে দখলদার ইসরাইলী বাহিনী। ইতোমধ্যে প্রায় ৩২ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। তবুও থামছে বিমান হামলা। এমনকি জাতিসংঘের ত্রাণ নিতে আসা ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলা চালানো হচ্ছে। হাসপাতাল, বাড়ী-ঘর মসজিদ সব ধ্বংস করে দিয়েছে। আর এই ইসলাইলকে বড় সমর্থন দিচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানি।

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় হামাসের বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধকে কেন্দ্র করে বিশ্বজুড়ে ইসরাইলের কাছে অস্ত্র বিক্রি সীমিত করার আহ্বান বেড়েছে। তবে সাম্প্রতিক দিনগুলোতে প্রকাশিত তথ্যে দেখা যায়, ইসরাইলের প্রায় সকল অস্ত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানি থেকে আমদানি করা।

যুদ্ধ এবং অস্ত্র নিয়ে গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই) ২০২৩ সালের রিপোর্ট অনুযায়ী, ইসরাইলের কেনা অস্ত্রের ৬৯ শতাংশ মার্কিন সংস্থা, ৩০ শতাংশ জার্মানি এবং শূন্য দশমিক নয় শতাংশ ইতালি থেকে।

এসআইপিআরআই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘২০২৩ সালের শেষের দিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দ্রুত ইসরাইলকে হাজার হাজার গাইডেড বোমা এবং ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করেছিল। কিন্তু ২০২৩ সালে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ইসরাইলি অস্ত্র আমদানির মোট পরিমাণ প্রায় ২০২২ সালের মতো ছিল। ২০২৩ সালের শেষ নাগাদ এখনো হাতে না পাওয়া প্রধান অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৬১টি যুদ্ধবিমান এবং জার্মানির ৪টি সাবমেরিন।’

এটা স্পষ্ট যে মার্কিন সংস্থাগুলোর তৈরি জয়েন্ট ডাইরেক্ট অ্যাটাক মিউনিশনে (জেডিএএম) মতো সিস্টেমের মাধ্যমে সাধারণ বোমাগুলোকে নির্ভুল অস্ত্রে রূপান্তরিত করা হয়। ইসরাইল এ ধরনের সিস্টেম তৈরি করে না।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক দশকগুলোতে মার্কিন যুদ্ধবিমান বিক্রি হামাস এবং হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে ইসরাইলের সামরিক পদক্ষেপে একটি প্রধান ভূমিকা পালন করেছে।

ফ্রান্সের এয়ারবাস হেলিকপ্টারের নির্মিত একটি হেলিকপ্টার বাদে ইসরাইলি বিমান বাহিনীর বর্তমান চালিত বিমানের সবকটিই যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি।

সূত্র : টাইমস অব ইসরাইল