ঢাকা ০৮:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ট্রেনে রাজধানীবাসীর ঈদযাত্রা শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৮:৪৪:৫২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ এপ্রিল ২০২৪ ৮৫ বার পড়া হয়েছে

ঈদযাত্রা (ফাইল ছবি)

NEWS396 অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাজধানীবাসির ঈদযাত্রা শুরু হয়েছে। বুধবারের (৩ এপ্রিল) সকাল ৬টা থেকে শুরু হয় এইযাত্রা। ইতোমধ্যেই বিশেষ ট্রেনে ঢাকা ছেড়েছেন অনেকে। এবারও অনলাইনে শতভাগ টিকিট বিক্রি হওয়ায় স্টেশনে ছিল না বাড়তি ভিড়। যারা অনলাইনে টিকিট কাটতে পেরেছেন, তারাই শুধু স্টেশনে আসছেন।

ঢাকা থেকে রাজশাহীর উদ্দেশে প্রথম বিশেষ ট্রেন ট্রেন ধূমকেতু এক্সপ্রেস (৭৬৯) সকাল ৬টায় ঢাকা স্টেশন ছেড়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নেয়। দ্বিতীয় ট্রেন হিসেবে কক্সবাজারগামী পর্যটক এক্সপ্রেস (৮১৬) সকাল ৬টা ১৫ মিনিটে ছাড়ার কথা থাকলে ৫ মিনিট পরে ৬টা ২০ মিনিটে প্লাটফর্ম ত্যাগ করে। তৃতীয় ট্রেন সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেসও (৭০৯) সকাল ৬টা ৩৪ মিনিটে ঢাকা ছেড়ে যায়।

সকালে কমলাপুর রেলস্টেশন ঘুরে দেখা যায়, বিনা টিকিটে যাত্রা বন্ধ করতে দুই ধাপে চেক করা হচ্ছে। টিকিট স্ক্যান করে তথ্য নিশ্চিত হওয়ার পরই যাত্রীদের ভেতরে প্রবেশ করানো হচ্ছে।

স্টেশনে বাঁশ দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে প্রথম অস্থায়ী গেট। সেখানে দায়িত্ব পালন করছেন রেলওয়ের কর্মীরা। পরে প্লাটফর্মের মূল গেট দিয়ে প্রবেশের আগেও যাত্রীদের থেকে টিকিট দেখা হচ্ছে। যাত্রীদের কেউ টিকিট প্রিন্ট করে নিয়ে এসেছে কেউ আবার মোবাইলেই টিকিট দেখিয়ে ভেতরে প্রবেশ করছিলেন।

ঈদ যাত্রায় যাত্রীদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য রেলস্টেশনে পুলিশ, আরএনবি ও র‌্যাব-৩ এর অস্থায়ী বুথ বসানো হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের তৎপর থাকতে দেখা গেছে।

বাড়ি যাওয়ার জন্য স্টেশনে আসা যাত্রীরা বলছেন, ঈদ যাত্রার প্রথম দিকে তেমন ভিড় থাকে না। প্রথমদিনের যাত্রীদের মধ্যে পরিবার একাংশের সদস্যদের দেখা গেছে। পরিবারকে আগে গ্রামে পাঠিয়ে অনেকে ঈদের আগে বাড়ি যাওয়ার পরিকল্পনা করে রেখেছেন। অনেক যাত্রী ঈদের আগে কাজের চাপ না থাকায় ছুটি নিয়ে আজ বাড়ির উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। প্রথমদিনের ঈদ যাত্রায় শিক্ষার্থীদেরও দেখা গেছে।

প্রথম দিন ঠিকঠাক ট্রেন ছাড়লেও শিডিউল বিপর্যয়ের শঙ্কা রয়েই গেছে। যাত্রীদের বক্তব্য, অনলাইনে টিকিট বিক্রি হওয়ায় রেল যাত্রা আগের তুলনায় অনেকটা স্বস্তি হয়েছে। তবে সময় মত ট্রেন ছেড়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। তাহলেই ঈদযাত্রা আরও স্বস্তির হবে।

প্রথমদিনের পরিস্থিতি নিয়ে ঢাকা রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, যাত্রীদের ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে আমাদের সব পর্যায়ের কর্মকর্তারা কাজ করে যাচ্ছেন। বিনা টিকিটের যাত্রীদের প্রবেশের জন্য ভিড় না থাকলে আশা করা যায় ঈদের শেষ ট্রেন পর্যন্ত সব কিছু শৃঙ্খলার মধ্যে থাকবে। আশা করি, যাত্রীদের জন্য একটি সুন্দর ঈদযাত্রা আমরা উপহার দিতে পারবো।

প্রসঙ্গত, ঈদ উপলক্ষে বিশেষ ট্রেন যাত্রার টিকিট ৯ এপ্রিল পর্যন্ত অনলাইনে শতাভাগ অগ্রিম বিক্রি হয়ে গেছে। এখন চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে ১০, ১১ ও ১২ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হবে। যাত্রীদের অনুরোধে ২৫ শতাংশ টিকিট যাত্রা শুরুর আগে স্টেশন থেকে ছাড়া হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ট্রেনে রাজধানীবাসীর ঈদযাত্রা শুরু

আপডেট সময় : ০৮:৪৪:৫২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ এপ্রিল ২০২৪
ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাজধানীবাসির ঈদযাত্রা শুরু হয়েছে। বুধবারের (৩ এপ্রিল) সকাল ৬টা থেকে শুরু হয় এইযাত্রা। ইতোমধ্যেই বিশেষ ট্রেনে ঢাকা ছেড়েছেন অনেকে। এবারও অনলাইনে শতভাগ টিকিট বিক্রি হওয়ায় স্টেশনে ছিল না বাড়তি ভিড়। যারা অনলাইনে টিকিট কাটতে পেরেছেন, তারাই শুধু স্টেশনে আসছেন।

ঢাকা থেকে রাজশাহীর উদ্দেশে প্রথম বিশেষ ট্রেন ট্রেন ধূমকেতু এক্সপ্রেস (৭৬৯) সকাল ৬টায় ঢাকা স্টেশন ছেড়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নেয়। দ্বিতীয় ট্রেন হিসেবে কক্সবাজারগামী পর্যটক এক্সপ্রেস (৮১৬) সকাল ৬টা ১৫ মিনিটে ছাড়ার কথা থাকলে ৫ মিনিট পরে ৬টা ২০ মিনিটে প্লাটফর্ম ত্যাগ করে। তৃতীয় ট্রেন সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেসও (৭০৯) সকাল ৬টা ৩৪ মিনিটে ঢাকা ছেড়ে যায়।

সকালে কমলাপুর রেলস্টেশন ঘুরে দেখা যায়, বিনা টিকিটে যাত্রা বন্ধ করতে দুই ধাপে চেক করা হচ্ছে। টিকিট স্ক্যান করে তথ্য নিশ্চিত হওয়ার পরই যাত্রীদের ভেতরে প্রবেশ করানো হচ্ছে।

স্টেশনে বাঁশ দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে প্রথম অস্থায়ী গেট। সেখানে দায়িত্ব পালন করছেন রেলওয়ের কর্মীরা। পরে প্লাটফর্মের মূল গেট দিয়ে প্রবেশের আগেও যাত্রীদের থেকে টিকিট দেখা হচ্ছে। যাত্রীদের কেউ টিকিট প্রিন্ট করে নিয়ে এসেছে কেউ আবার মোবাইলেই টিকিট দেখিয়ে ভেতরে প্রবেশ করছিলেন।

ঈদ যাত্রায় যাত্রীদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য রেলস্টেশনে পুলিশ, আরএনবি ও র‌্যাব-৩ এর অস্থায়ী বুথ বসানো হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের তৎপর থাকতে দেখা গেছে।

বাড়ি যাওয়ার জন্য স্টেশনে আসা যাত্রীরা বলছেন, ঈদ যাত্রার প্রথম দিকে তেমন ভিড় থাকে না। প্রথমদিনের যাত্রীদের মধ্যে পরিবার একাংশের সদস্যদের দেখা গেছে। পরিবারকে আগে গ্রামে পাঠিয়ে অনেকে ঈদের আগে বাড়ি যাওয়ার পরিকল্পনা করে রেখেছেন। অনেক যাত্রী ঈদের আগে কাজের চাপ না থাকায় ছুটি নিয়ে আজ বাড়ির উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। প্রথমদিনের ঈদ যাত্রায় শিক্ষার্থীদেরও দেখা গেছে।

প্রথম দিন ঠিকঠাক ট্রেন ছাড়লেও শিডিউল বিপর্যয়ের শঙ্কা রয়েই গেছে। যাত্রীদের বক্তব্য, অনলাইনে টিকিট বিক্রি হওয়ায় রেল যাত্রা আগের তুলনায় অনেকটা স্বস্তি হয়েছে। তবে সময় মত ট্রেন ছেড়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। তাহলেই ঈদযাত্রা আরও স্বস্তির হবে।

প্রথমদিনের পরিস্থিতি নিয়ে ঢাকা রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, যাত্রীদের ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে আমাদের সব পর্যায়ের কর্মকর্তারা কাজ করে যাচ্ছেন। বিনা টিকিটের যাত্রীদের প্রবেশের জন্য ভিড় না থাকলে আশা করা যায় ঈদের শেষ ট্রেন পর্যন্ত সব কিছু শৃঙ্খলার মধ্যে থাকবে। আশা করি, যাত্রীদের জন্য একটি সুন্দর ঈদযাত্রা আমরা উপহার দিতে পারবো।

প্রসঙ্গত, ঈদ উপলক্ষে বিশেষ ট্রেন যাত্রার টিকিট ৯ এপ্রিল পর্যন্ত অনলাইনে শতাভাগ অগ্রিম বিক্রি হয়ে গেছে। এখন চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে ১০, ১১ ও ১২ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হবে। যাত্রীদের অনুরোধে ২৫ শতাংশ টিকিট যাত্রা শুরুর আগে স্টেশন থেকে ছাড়া হচ্ছে।